সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৮:০৭ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশ মাইক্রোবায়োলজিস্ট সোসাইটির ৩৫তম বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ঢাবি প্রতিনিধি
  • আপলোডের সময় : শনিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৫৩ বার পঠিত

বাংলাদেশ সোসাইটি অফ মাইক্রোবায়োলজিস্ট (বিএসএম)-এর ৩৫তম বার্ষিক সম্মেলন আজ শনিবার (১১ ডিসেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এই সম্মেলন উদ্বোধন করেন।

এতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এবছর সম্মেলনের প্রতিপাদ্য হলো ‘বৈশ্বিক মহামারিতে সুপারবাগ এর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় অণুজীব বিজ্ঞানীদের ভূমিকা’।

অধ্যাপক ড. মো. মাহফুজুল হকের সভাপতিত্বে সম্মেলনে জাতীয় অধ্যাপক ড. শাহ্লা খাতুন, ঢাবি জীব বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মিহির লাল সাহা এবং বিএসএম-এর সভাপতি অধ্যাপক ড. এ আর এম সোলায়মান বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। সম্মেলনে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন এবং আইসিডিডিআরবি’র ভাইরোলজি ল্যাবরেটরি প্রধান ড. মুস্তাফিজুর রহমান মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, বৈশ্বিক মহামারিতে সুপারবাগ এখন মানব জাতির জন্য বড় ধরণের হুমকি। প্রকৃতি, পরিবেশ ও মানবজাতির জন্য বিবর্তন একটি স্বাভাবিক বিষয়। এই বিবর্তনের সাথে খাপ খাইয়ে চলার জন্য নতুন নতুন গবেষণা ও উদ্ভাবন করতে হবে।

এজন্য সম্মিলিত প্রয়াসের বিকল্প নেই। সুপারবাগ ও সকল মহামারি থেকে মানবজাতিকে রক্ষা করতে নিরলস পরিশ্রমের মাধ্যমে মৌলিক গবেষণা ও উদ্ভাবনের জন্য উপাচার্য শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গবেষকদের প্রতি আহŸান জানান।
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, সুপারবাগের কারণে প্রতিদিন বিশ্বে অনেক মানুষের প্রাণহানী ঘটছে। তিনি এই সম্মেলন আয়োজন করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান। বিদ্যা-বুদ্ধি ও গবেষণা দিয়ে বাংলাদেশ সোসাইটি অফ মাইক্রোবায়োলজিস্ট দেশ সেবায় এবং মানবজাতিকে রক্ষায় কাজ করে যাবে বলে তিনি প্রত্যাশা করেন।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..