রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
প্রতিবন্ধীদের পাশে দাঁড়ানো আমাদের দায়িত্ব : পরিকল্পনামন্ত্রী মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ড. মোমেনের বৈঠক যুদ্ধ বন্ধ করুন : জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রী সব সময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে সৌদি আরব : রাষ্ট্রদূত আল দুহাইলান নলছিটিতে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা ভোলার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের আধুনিক ভবন নির্মানের ৩ বছরেও চালু হয়নি পটুয়াখালীতে ইউপি সচিবের দুর্নীতির সংবাদ প্রকাশে স্থানীয় সরকার প্রকৌশলীর তদন্ত বেতাগীতে সরকারি গাছ কাটতে বাঁধা দেয়ায় এক যুবককে কুপিয়ে আহত ভোলায় দেশি হাঁসের কালো ডিম পাড়া নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি আপনজন ভাবনাঃ এস এম আক্তারুজ্জামান, ডিআইজি বরিশাল রেঞ্জ

ব্যক্তিগত গাড়ি কমিয়ে গণপরিবহনে নজর দিতে হবে: মেয়র আতিক

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপলোডের সময় : বুধবার, ২৩ মার্চ, ২০২২
  • ৩৯ বার পঠিত
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম (ফাইল ছবি)।

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজধানী ঢাকার যানজট নিরসনে ব্যক্তিগত গাড়ি কমিয়ে গণপরিবহনের প্রতি নজর দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘বাস রুট রেশনালাইজেশনের আওতায় শহরে যেসব রুট আছে তাতে কীভাবে দ্রুত বাস সেবা দেওয়া যায়, সে ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা কমিয়ে গণপরিবহনের মান ও সেবার উন্নয়নেও আমরা আরও বেশি নজর দিচ্ছি।’

মঙ্গলবার (২২ মার্চ) বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ২২তম সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মেয়র এসব কথা বলেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান কার্যালয় নগর ভবনের বুড়িগঙ্গা হলে কমিটির এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘রাজধানীতে বাস রুট রেশনালাইজেশন প্রকল্পের আওতায় ঢাকা নগর পরিবহনে নতুন ৩টি রুটে যুক্ত হচ্ছে আরও ২২৫টি বাস।’

ঢাকার দুই তৃতীয়াংশ মানুষের বাহন বাস উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সমীক্ষায় দেখা গেছে, ঢাকা শহরের ৬২ শতাংশ মানুষ বাস সার্ভিস সেবার ওপর নির্ভর করে। তাই বাস সেবা সঠিকভাবে পরিচালনা করতে পারলে ট্রাফিক সিস্টেমের বড় পরিবর্তন আসবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাস মালিকদের মধ্যে প্রতিযোগিতা নয়, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় নগরবাসীর জন্য একটি সুশৃঙ্খল বাস সার্ভিস সেবা প্রদান করা সম্ভব হবে।’

সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। এ সময় তাপস বলেন, ‘ঢাকা নগর পরিবহনে যাত্রী সেবায় আমাদের প্রাধান্য। যাত্রীরা অত্যন্ত আনন্দিত। তাদের অতিরিক্ত টাকা দিতে হয় না। হয়রানির শিকার হতে হয় না। নির্দিষ্ট জায়গায় থেকে উঠতে পারে আবার নির্দিষ্ট জায়গায় নামতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঢাকাবাসীর আকাঙ্ক্ষা আমরা পূরণ করতে পেরেছি। সে জন্য আমরা আনন্দিত। এখন এই অভিজ্ঞতা নিয়ে আমরা বাকি তিনটি যাত্রাপথে ঢাকা নগর পরিবহন চালু করবো। কিন্তু এটি তখনই পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন হবে, যখন আমরা সব যাত্রাপথকে একসঙ্গে নিয়ে একটি কোম্পানি করে ‘ঢাকা নগর পরিবহন কোম্পানি’ হিসেবে পরিচালিত করতে পারবো।’

সভায় অন্যদের মধ্যে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক নীলিমা আখতার, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশের যুগ্ম পুলিশ কমিশনার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিন, রাজউক সদস্য মো. শফিকুল হক, বিআরটিএ এর পরিচালক শীতার্ত শেখর বিশ্বাস, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি আফজাল উদ্দিন আহমেদসহ কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..