সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০২:১৩ অপরাহ্ন

ষষ্ঠ ধাপে ইউপিঃ ২১৮ ভোটগ্রহণ সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোডের সময় : সোমবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৩৮ বার পঠিত

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের ষষ্ঠ ধাপের ভোটগ্রহণ আজ সোমবার সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে এ ভোটগ্রহণ। নির্বাচনি সব এলাকায় ভোটারেরা সকাল সকাল ভোট কেন্দ্রে আসতে শুরু করেছেন।

শীত উপেক্ষা করে সকাল থেকে ভোটারদের লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিতে দেখা গেছে। তবে, এই প্রথম ইভিএমে ভোট হওয়ায় কিছুটা জটিলতায় পড়েছেন ভোটারেরা। অনেকের আঙুলের ছাপ না মেলায় ভোট দিতে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা ও নবীনগর উপজেলার ১৪ ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ চলছে। দুই উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ৮০ হাজার ৪৮৬ জন। সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে পুলিশ, বিজিবি, আনসারের পাশাপাশি মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্স দায়িত্ব পালন করছে। এ ছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট টিমও কাজ করছে।

ময়মনসিংহের ফুলপুর ও ভালুকা উপজেলায় ২১টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ চলছে। ভালুকায় ১১ এবং ফুলপুরে ১০টিসহ মোট ২১টি ইউপিতে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিচ্ছেন ভোটারেরা। দুই উপজেলার পাঁচ লাখ ২৬ হাজার ৭০৪ জন ভোটার আধুনিক পদ্ধতিতে তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন। চেয়ারম্যান পদে মোট ১১২ জন, সাধারণ সদস্য পদে ৮১০ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ২৫৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার আট ইউপির নির্বাচন শুরু হয়েছে। প্রচণ্ড শীত ও কুয়াশা উপেক্ষা করে সকাল থেকেই ভোটারেরা কেন্দ্রে কেন্দ্রে উপস্থিত হয়েছেন। তবে, পুরুষ ভোটারের চেয়ে নারী ভোটারের উপস্থিতি বেশি। সবগুলো ইউনিয়নে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ হচ্ছে। আট ইউনিয়নে এক লাখ ৯৭ হাজার ৮৪৭ জন ভোটার ৯০টি কেন্দ্রের ৫৮৭ ভোট কক্ষে ভোট প্রদান করছেন। আটটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৩৯ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ২৪টি পদের বিপরীতে ১০৬ জন এবং ৭২টি সাধারণ সদস্য পদের বিপরীতে ৩৪৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ভোট সুষ্ঠু ও অবাধ করতে কেন্দ্র এবং এর আশপাশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুল সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

আজ দেশের ২২ জেলার ৪২ উপজেলার ২১৮টি ইউপিতে অনুষ্ঠিত ভোটগ্রহণ হচ্ছে। দুটি বাদে ২১৬টি ইউপিতেই ভোট নেওয়া হচ্ছে ইভিএমে।

ইসি সূত্র জানায়, ষষ্ঠ ধাপের নির্বাচনে মোট ভোটার রয়েছে ৪১ লাখ ৮২ হাজার ২৬৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২১ লাখ ১৪ হাজার ৭২০ জন, নারী ভোটার ২০ লাখ ৬৭ হাজার ৫৩৭ জন। এ ছাড়া ছয় জন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটারও রয়েছেন। দুই হাজার ১৮৬টি কেন্দ্রের ১৩ হাজার ৩০৫টি কক্ষে ভোট নেওয়া হচ্ছে।

নির্বাচনের এ ধাপে সারা দেশে বিভিন্ন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১১ হাজার ৬০৪ জন প্রার্থী। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে এক হাজার ১৯৯ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে দুই হাজার ৫৫৯ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে সাত হাজার ৮৪৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ইউপি নির্বাচনের এই ধাপে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ১৪৪ প্রার্থী। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১২ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৩২ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ১০০ প্রার্থী রয়েছেন।

নির্বাচনি এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ রয়েছে। গত শনিবার দিনগত রাত ১২টা থেকে আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত মোট ৫৪ ঘণ্টার জন্য এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। এ ছাড়া গত শুক্রবার মধ্যরাত থেকে এসব এলাকায় নির্বাচনি প্রচারণাও বন্ধ রয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে র‌্যাব, পুলিশ ও আনসারসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নির্বাচনি এলাকায় টহল শুরু করেছেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে রয়েছেন নির্বাহী ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট।

গত ৫ জানুয়ারি ৭০৮ ইউপিতে পঞ্চম ধাপের নির্বাচন শেষ হয়েছে। এর আগে গত বছরের ২১ জুন ও ২০ সেপ্টেম্বর প্রথম ধাপের দুই দফায় ৩৬৫টি এবং ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে ৮৩৩টি ইউনিয়ন পরিষদ ভোটগ্রহণ চলে। পরে ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে এক হাজার ইউপিতে এবং চতুর্থ ধাপে ২৬ ডিসেম্বর ৮৩৬ ইউপিতে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়।

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি ১৩৮ ইউপিতে ভোটের মাধ্যমে সপ্তম ও শেষ ধাপের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..