মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নাগেশ্বরীতে প্রাণী সম্পদ অফিসে টেকনিসিয়ান নিয়োগে অনিয়ম এডিসের লার্ভা পেলে জেল ও জরিমানা করা হবে: ডিএনসিসি মেয়র জলবায়ু অভিযোজনে সফলতার জন্য বিশ্বের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস জরুরি : পরিবেশমন্ত্রী কারিগরি বোর্ডের চেয়ারম্যানকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে ডিবি আওয়ামী লীগের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ স্থগিত প্রধানমন্ত্রীর থাইল্যান্ড সফরকালে ৫টি দলিল স্বাক্ষর ও বহুমুখী সহযোগিতার সম্ভাবনা : পররাষ্ট্রমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় বাংলাদেশ জলবায়ু উন্নয়ন অংশীদারিত্ব গঠন: প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধ ব্যয়ের অর্থ জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলায় ব্যবহার হলে বিশ্ব রক্ষা পেত: প্রধানমন্ত্রী কাতারের আমীরকে লাল গালিচা অভ্যর্থনা দেয়া হয় ঢাকা বিমানবন্দরে তাড়াইলে তীব্র তাপদাহে অতিষ্ঠ জনজীবন- হাসপাতালে বাড়ছে রোগী

ট্রাম্পকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণার সুপারিশ কংগ্রেসের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  • আপলোডের সময় : শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৫৮৩৯ বার পঠিত

২০২১ সালের জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন ক্যাপিটল হিলে যে দাঙ্গা হয়েছিল, তাতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উসকানির প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে উল্লেখ করে তাকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণার সুপারিশ করেছে মার্কিন পার্লামেন্ট কংগ্রেসের তদন্ত কমিটি।

ক্যাপিটল হিলের দাঙ্গা তদন্তে কংগ্রেসের গঠিত কমিটি শুক্রবার তাদের প্রতিবেদন জমা দিয়েছে; সেখানেই এ সুপারিশ করা হয়েছে কমিটির পক্ষ থেকে।

প্রতিবেদনের শুরুতে কমিটির চেয়ারম্যান বেনি থম্পসন বলেন, ‘আমাদের দেশ বর্তমানে এমন অবস্থানে নেই, যেখানে যাবতীয় গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কোনো একজন পরাজিত প্রেসিডেন্ট যা খুশি তা করবেন এবং সংঘাত উস্কে দেবেন। আমরা সেই অবস্থান থেকে অনেক অনেক দূরে সরে এসেছি।’

ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ক্যাপিটল হিলে দাঙ্গার উসকানিদাতার সামরিক বাহিনী, পররাষ্ট্র ও বেসামরিক প্রশাসনসহ যুক্তরাষ্ট্রের যাবতীয় সরকারি ক্ষেত্রে যেন স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়— সে সুপারিশ করা হয়েছে তদন্ত প্রতিবেদনে।

সেই সঙ্গে চরমপন্থী কোনো ব্যক্তি বা তার সমর্থকরা যে নির্বাচনে প্রার্থী না হতে পারে, সেজন্য দেশের নির্বাচনী আইন সংস্কার করা প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে কংগ্রেসের এই প্রতিবেদন জমা পড়ার পর শুক্রবার নিজের সোশ্যাল মিডিয়া ট্রুথ সোশ্যালে পোস্ট করা এক বিবৃতিতে কংগ্রেসের এই প্রতিবেদনকে ‘পক্ষপাতদুষ্ট’ উল্লেখ করে বলেছেন, তিনি প্রতিপক্ষ ডেমেক্রেটিক পার্টির নেতৃত্বের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার।

২০২০ সালের নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ও ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা জো বাইডেন।

পরাজিত হওয়ার পর থেকেই ট্রাম্প নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ করে আসছিলেন। এমনকি নির্বাচন বাতিলের দাবিতে রাজধানী ওয়াশিংটনসহ একাধিক অঙ্গরাজ্যের আদালতে কয়েকটি মামলাও করেছিলেন তিনি। কিন্তু সেসবের তিনি পরাজিত হন তিনি।

২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি ওয়াশিংটন ডিসিতে ক্যাপিটল হিল ভবনে দেশের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জয় আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন করতে এক যৌথ অধিবেশনে বসেছিলেন ডেমোক্রেটিক ও রিপাবলিক পার্টি আইন প্রণেতারা। অন্যদিকে, সেদিন সকালের বেশ আগেই হাজার হাজার ট্রাম্প সমর্থক ‘আমেরিকাকে বাঁচাও’ নামের একটি গণজমায়েত কর্মসূচিতে অংশ নিতে ওয়াশিংটনে এসেছিলেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ওই জনসভায় ভাষণ দিয়ে জো বাইডেনের বিজয় অনুমোদন করার বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখেন। পাশাপশি এই অনুমোদন প্রক্রিয়া রুখে দিতে ভক্ত-সমর্থকদের সক্রিয় হওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

তিনি এই বক্তব্য দেওয়ার দুই ঘণ্টার মধ্যে সমাবেশস্থল থেকে একটু দূরে একটু দূরে কয়েক হাজার ট্রাম্প সমর্থক ক্যাপিটল হিল ভবনের নিরাপত্তা ব্যারিকেড ভেঙে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হন। একপর্যায়ে কংগ্রেসের অধিবেশন চলার মধ্যেই পুলিশের বাধা ভেঙে ক্যাপিটল হিলের ভেতর ঢুকে তাণ্ডব শুরু করেন ট্রাম্প সমর্থকরা। এ সময় তাদের অধিকাংশের হাতে ছিল ট্রাম্পের পতাকা।

সেদিন ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৬ জন নিহত হন, এবং আহত হন আরও ১৪০ জন।

এই ঘটনার তদন্তে ২০২১ সালের এপ্রিলে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে কংগ্রেস। তারপর বিগত ১৮ মাসে ওই ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১ হাজার ব্যক্তির সাক্ষ্য গ্রহণ করে এই প্রতিবেদন প্রস্তুত করেছে কমিটি।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..