সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০৯:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
তাড়াইলে ৪ গরু চোর গ্রেফতার, জব্দ গাড়িসহ ৬টি গরু পটুয়াখালীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল করিম সোয়েবের ইশতেহার ঘোষণা  রেড ক্রিসেন্টের প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা সাজানো: কর্মকর্তাদের মাঝে চাপা ক্ষোভ ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় প্রস্তুতি, ফায়ার সার্ভিস, ছুটি বাতিল : মনিরটিং সেল গঠন এমপি আনার খুনের তদন্তে ভারত যাবে গোয়েন্দা পুলিশ কোন দলের নেতাকর্মীকে জেলে পাঠানোর এজেন্ডা আমাদের নেই: ওবায়দুল কাদের সাকিব নট আউট ‘৭০০’ সরকার সকল ধর্মের বিশ্বাসীদের নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে চায় : প্রধানমন্ত্রী ঢাকাবাসীকে সুন্দর জীবন উপহার দিতে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় রেমালের মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে সরকার : মহিববুর রহমান

বাজারে চড়া দামের নাভিশ্বাস থেকে একটু স্বস্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোডের সময় : শনিবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৫৯০৪ বার পঠিত

দীর্ঘদিন পর নিত্যপণ্যের বাজারে কিছুটা স্বস্তির দেখা মিলেছে। দুই-একটি পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পেলেও বেশ কয়েকটির দাম কমেছে। শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এই চিত্র পাওয়া গেছে।

রাজধানীর বাজারগুলোতে দেশি পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১০ টাকা কমেছে। ভালো মানের দেশি পেঁয়াজের কেজি এখন ৩০ টাকা। ছোট আকারের দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০-২৫ টাকা কেজি। অবশ্য আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজের দাম ৪৫-৫০ টাকা কেজি।

মগবাজার এলাকার ব্যবসায়ী মাসুদ আলী বলেন, ‘এখন নতুন পেঁয়াজের ভরা মৌসুম। প্রতিদিনই বাজারে ভালো মানের নতুন পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়ছে। এজন্য দাম কমেছে।’

এদিকে ব্রয়লার মুরগির দাম টানা দুই সপ্তাহে ৩০ টাকার মতো কমেছে। মুরগির বাজারে দেখা গেছে, ব্যবসায়ীরা ব্রয়লার মুরগি বিক্রি করছেন ১৭০-১৭৫ টাকা কেজি। পাকিস্তানি কক বা সোনালি মুরগির কেজি ২৪০-২৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর লাল লেয়ার মুরগির কেজি ২৪০-২৫০ টাকা।

অপরিবর্তিত রয়েছে মুরগি ও মাছের দাম। মাছ বাজার দেখা গেছে, শোল মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা। তেলাপিয়া ও পাঙাশ মাছের কেজি ১৫০ থেকে ১৭০ টাকা। রুই ও কাতল মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৪৫০ টাকা। শিং ও টাকি মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৫০ থেকে ৩৫০ টাকা। এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার থেকে ১২০০ টাকা। ছোট ইলিশের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা।

বেশিরভাগ সবজির দাম আগের মতোই। সবজির বাজারে দেখা গেছে, গত সপ্তাহে ৮০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া শসা এখন ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। শশার পাশাপাশি পাকা টমেটো ও গাজরের দাম কিছুটা কমেছে। পাকা টমেটোর কেজি বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০-৫০ টাকা। গাজরের কেজি বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৩০-৪০ টাকা। এছাড়া ফুলকপি প্রতি পিস বিক্রি হচ্ছে ৪০-৬০ টাকা। শিমের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৮০ টাকায়। শালগমের (ওল কপি) কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা, বরবটির কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০-৭০ টাকা। লাউয়ের পিস বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা। লালশাকের আঁটি ১০-১৫ টাকা, মুলাশাকের আঁটি ১০-১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর পালং শাকের আঁটি বিক্রি হচ্ছে ১৫-২০ টাকা।

কেজিতে ৩-৫ টাকা দাম কমেছে আলুর। এছাড়া সরু চালের দাম কমেছে কেজিতে দুই টাকার মতো। দাম কমার তালিকায় আছে খোলা আটা (কেজিতে দুই টাকা পর্যন্ত কমেছে), মসুর ডালের (বড় দানা) দাম কমেছে কেজিতে ৫ টাকা। তবে ডিমের দাম হালিতে দুই টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। এছাড়া সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে লিটারে ৫ টাকা।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..