রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৬:৫০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
সড়ক ও জনপথ কর্মকর্তার ব্যাংকে শত কোটি টাকার লেনদেন হরিরামপুরে ৪ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা অর্জনের অভিযোগ ডিপিএইচই’র প্রাক্কলনিক আনোয়ারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের উন্নয়নে চীনের সমর্থন অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিলেন শি জিনপিং বেনজীর-মতিউর-এর কুশপুতুল দাহ করায় হুমকি : উদ্বেগ প্রকাশ কোটা সমস্যার সমাধান করার দাবি জাতীয় শিক্ষাধারার হরিরামপুরে পদ্মা তীর রক্ষা বাঁধে ধস, জনমনে আতংক মুরাদনগর শ্রীকাইলে ক্যাপ্টেন নরেন্দ্রনাথ দত্ত স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে হুরোয়া চ্যাম্পিয়ন তাড়াইলের কথিত পীর লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ বর্ষার পানি বৃদ্ধির সঙ্গে বাড়ছে নৌকার চাহিদা

মির্জাগঞ্জের মাধবখালী ইউপি চেয়ারম্যানের সাংবাদিকের সাথে অশালীন আচরন: অডিও ভাইরাল

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপলোডের সময় : সোমবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৫৮৫৬ বার পঠিত

পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার ১ নং মাধবখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মোঃ মিজানুর রহমানের এক সাংবাদিকের সাথে অশালীন আচরনের একটি অডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ভাইরাল হয়েছে বলে জানা গেছে।

সেই অডিওতে শোনা যায় তিনি হুমকী দিয়ে বলছেন “কিসের সাংবাদিক আপনি , আমি চেয়ারম্যান আমি আমার (ইউনিয়ন পরিষদের) টাকা উঠাইছি আবার আমার টাকা আমি (ইউনিয়ন পরিষদের একাউন্টে) জমা দিছি ,আসেন আমার সামনে আসেন দেহি আপনারা কিসের সাংবাদিক” এ ছাড়াও তিনি ঐ সাংবাদিককে হুমকী দিয়ে বিভিন্ন ধরনের অশালীন ভাষায় গালি-গালাজ করেন।

উল্লেখ্য, এর আগে ১ নং মাধবখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মোঃ মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে হাট বাজার ইজারা লব্দের ৫ লাখ ১৭ হাজার টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ ও ৮ জন ইউপি সদস্যে তার বিরুদ্ধে ২৮/০৮/২৩ ইং তারিখে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক ও ইউএনও বরাবর অনাস্থা প্রদানের লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, গত ২৭/০৮/২৩ ইং তারিখ উপজেলা হতে হাট বাজার ইজারা লব্দের ৫ লাখ ১৭ হাজার টাকা চেকের মাধ্যমে পেয়ে সাধারন হিসাব নম্বর ৪৩১৭***১৩২০ সোনালী ব্যাংক সুবিদখালী শাখায় জমা দেয়। ঐ দিনই আরও দুইটি চেকের মাধ্যমে ৩ লক্ষ ও ২ লক্ষ ১৭ হাজার টাকা উত্তোলন করেন চেয়ারম্যান।

উপরেল্লখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে একটি জাতীয় পত্রিকার একজন সিনিয়র সাংবাদিক তার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে তার বক্তব্যের জন্য তার মোবাইলে কল দিলে তিনি তার সাথে এ অশালীন আচরন ও গালা-গালি করেন।

এ বিষয়ে সেই প্রেতিবেদকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন “আমি মাধবখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মোঃ মিজানুর রহমানের কাছে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সচিবকে দোষারুপ করেন কিন্তু সচিব চেয়ারম্যানের বক্তব্য অস্বিকার করলে সে বিষয়ে আবার চেয়ারম্যানেকে ফোন করা হলে তিনি আমার সাথে এ আচরন করেন। আমি এর তীব্র নিন্দা ও এর বিচার কামনা করছি।

অভিযোগের বিষয়ে মাধবখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মোঃ মিজানুর রহমানের মোবাইল নম্বরে (01733………33) বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

ভাইরাল অডিও লিংক (ফেসবুক): https://fb.watch/mRKfmNYjyV/

ইউটিউব লিংক: https://youtu.be/Siwk8S5cmAs?si=YxCos7lffzqwb6WK

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..