বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন প্রধানমন্ত্রীর তৃতীয় ধাপে ১১২টি উপজেলার ভোটগ্রহণ ২৯ মে ঝালকাঠিতে ট্রাক, অটোরিকশা ও প্রাইভেট কারের ত্রিমুখী সংঘর্ষে ১৪ জন নিহত মধ্যপ্রাচ্যের অস্থিরতার প্রতি নজর রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর মির্জাগঞ্জে কৃষি জমিতে সেচ দিতে গিয়ে যুবক ফিরলো লাশ হয়ে মির্জাগঞ্জে ইসি সচিব’র সাথে মতবিনিময় সভা পটুয়াখালীতে সাবেক ইউপি সদস্যের স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু তাড়াইলে জাতীয় উলামা মশায়েখ আইম্মা পরিষদের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত ঈদ উপলক্ষে অসহায় শিশুদের মাঝে এসো গড়ি ফাউন্ডেশন’র পোশাক বিতরণ ঈদে নাড়ির টানে ঘড় মুখো মানুষের নিরাপদ যাত্রা নিশ্চিত করতে নিরলসভাবে কাজ করছে পুলিশ: গাইবান্ধা পুলিশ সুপার

১৯ বছর চেয়ারম্যান পদে ভোট দিতে পারছেননা তজুমুদ্দীনের সোনাপুরবাসী

সাব্বির আলম বাবু (ভোলা ব্যুরো চিফ):
  • আপলোডের সময় : রবিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৬০০২ বার পঠিত

দীর্ঘ ১৯ বছর পর চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তফসিল ঘোষণার পর ভোটারদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করলেও গত ৬ ডিসেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাহরের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে নয়জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। এতে আওয়ামী লীগ মনোননীত প্রার্থী মো. মেহেদি হাসান (মিশু হাওলাদার) বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। গত ৭ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের দিনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় মেহেদি হাসানকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সীমানা বিরোধের মামলায় গত ১৯ বছর ধরে তজুমদ্দিন উপজেলার ২ নম্বর সোনাপুর ইউনিয়নে কোনো নির্বাচন হয়নি। এতে করে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও কয়েকজন ইতোমধ্যে মারাও গেছেন। সর্বশেষ ওই ইউনিয়নে নির্বাচন হয়েছে ২০০৩ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি। এর পর থেকে আর কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি।
গত ১০ নভেম্বর ইউনিয়নটির তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এতে ইউনিয়নের ভোটারদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছিলো। কিন্তু গত ৬ ডিসেম্বর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নির্বাচিত হওয়ায় ভোটাররা ১৯ বছর পরও চেয়ারম্যান হিসেবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেননি।
তবে ইউনিয়নটিতে আগামী ২৬ ডিসেম্বর চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন না হলেও সংরক্ষিত সদস্য ও সাধারণ সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তজুমদ্দিন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ ১৯ বছর পর সোনাপুর ইউনিয়নে চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিল ঘোষণার পর চেয়ারম্যান পদে ১০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে বিএনপির স্বতন্ত্রপ্রার্থী ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীসহ নয়জন প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় ৭ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের দিনে মেহেদী হাসানকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।
উপজেলা নির্বাচন অফিস জানায়, সোনাপুর ইউনিয়নের নয়টি ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১১জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৫২জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এ ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ১৭ হাজার ১০৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার নয় হাজার ৫০ ও নারী ভোটার আট হাজার ৫৬ জন।
তজুমদ্দিন উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আমীর খসরু গাজী জানান, সোনাপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে নয়জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. মেহেদী হাসানকে বেসরকারিভাবে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ২৬ ডিসেম্বর ইউনিয়নটিতে সংরক্ষিত সদস্য ও সাধারণ সদস্য পদে ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..