রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০৮:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
জাল ভোট পড়লেই কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হবে : ইসি আহসান হাবিব জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে কেউ যেন বৈষম্যের শিকার না হন: রাষ্ট্রপতি শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশে মুখস্ত শিক্ষার ওপর নির্ভরতা কমাতে পাঠ্যক্রমে পরিবর্তন আনা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী কিশোরগঞ্জে তীব্র দাবদাহে ইসলামী যুব আন্দোলনের হাতপাখা বিতরণ দেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে টেকসই কৌশল উদ্ভাবনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর হলুদ সাংবাদিকতা প্রতিরোধে সকলকে দায়িত্বশীল হতে হবে : বিচারপতি নিজামুল হক গলাচিপা ও দশমিনায় প্রকাশ্যে নিধন হচ্ছে রেনু পোনা,কথা বলতে নারাজ কর্তৃপক্ষ ডিএসইসির নবনির্বাচিত কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ বেলা অবেলা : স্বপ্না রহমান ডিএসইসি’র নতুন সভাপতি ডিবিসি’র মুক্তাদির অনিক

বেতাগীতে জমি নিয়ে বিরোধ: রড দিয়ে পিটিয়ে ১ জনকে হত্যা, আহত ২

বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি:
  • আপলোডের সময় : রবিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৬০১৫ বার পঠিত
বেতাগী (বরগুনা); উপজেলার দক্ষিণ ভোলানাথপুর গ্রামে বাড়ির ভেতরেই চিরনিদ্রায় শায়িত কৃষক ধলু মৃধা।

বরগুনার বেতাগীতে জমি নিয়ে বিরোধে চাচা শশুরের হাতে কৃষক ধলু মৃধা (৭৪) নিহত ও সংঘর্ষে তার ছেলে মো. হাসান (১৯), স্ত্রী মোসা: রেনু বেগম (৪৫) আহত হয়েছে। রবিবার (০২ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ ভোলানাথপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ধলু মৃধা ঐ এলাকর মৃত মোজাফর মৃধার ছেলে।
নিহতের স্বজনেরা জানান, নিহত ধলু মৃধার সঙ্গে জমি নিয়ে তাঁর চাচা শশুর মো: রফিক মল্লিকের (৫৫) দীর্ঘদিনের বিরোধ চলে আসছিলো। এর জের ধরে সকালে রফিক মল্লিক জামাই রাজীব, ছেলে রোহান সহ তার লোকজন নিয়ে সকালে জমি পরিমাপ করতে আসে। এ সময় ধলু মৃধার সঙ্গে রফিকের কথা-কাটাকাটি হয়। এ পর্যায়ে রফিক তার লোকজন নিয়ে লোহার রড দিয়ে ধলু মৃধাকে পিটিয়ে হত্যা এবং তার স্ত্রী ও ছেলেকে কাচিয়ে দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন। এতে ধলু মৃধা ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং তার স্ত্রী মোসা: রেনু বেগম ও ছেলে মো.হাসান আহত হন।
দুপুরে আড়াইটায় নিহতের শাশুড়ি মাকসুদা বেগম ও তার ছেলে মো. হাসান বেতাগী প্রেসক্লাবে এসে এর অভিযোগ ও ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে এ হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।
বেতাগী হাসপাতালে নেওয়ার পরে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ধলু মৃধাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে থানায় লাশ নিয়ে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনায় প্রেরণ করে।
বেতাগী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: শাহ আলম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে দ্রæত হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..