সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
তাড়াইলে ৪ গরু চোর গ্রেফতার, জব্দ গাড়িসহ ৬টি গরু পটুয়াখালীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল করিম সোয়েবের ইশতেহার ঘোষণা  রেড ক্রিসেন্টের প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা সাজানো: কর্মকর্তাদের মাঝে চাপা ক্ষোভ ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় প্রস্তুতি, ফায়ার সার্ভিস, ছুটি বাতিল : মনিরটিং সেল গঠন এমপি আনার খুনের তদন্তে ভারত যাবে গোয়েন্দা পুলিশ কোন দলের নেতাকর্মীকে জেলে পাঠানোর এজেন্ডা আমাদের নেই: ওবায়দুল কাদের সাকিব নট আউট ‘৭০০’ সরকার সকল ধর্মের বিশ্বাসীদের নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে চায় : প্রধানমন্ত্রী ঢাকাবাসীকে সুন্দর জীবন উপহার দিতে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় রেমালের মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে সরকার : মহিববুর রহমান

পটুয়াখালীতে সেই আলোচিত হত্যা মামলায় প্রধান আসামি মেয়র মহিউদ্দিন

 অনলাইন ডেস্ক:
  • আপলোডের সময় : শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৬০৩৯ বার পঠিত

সেই আলোচিত পটুয়াখালীর পৌরসভাস্থ শ্মশান ঘাট সংলগ্ন পরিমাপ নিয়ে মাকসুদুর রহমান তদালুকদারকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যার অভিযোগ এনে আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে পটুয়াখালীর পৌর মেয়র মহিউদ্দিন আহমেদকে।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর ) মোঃ এনামুল হক নামে একজন ব্যক্তি বাদী হয়ে পটুয়াখালী বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ১ম আমলী আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করলে ম্যাজিস্ট্রেট আশিকুর রহমান লাশ কবর থেকে উত্তোলন পূর্বক ময়নাতদন্তের জন্য সিআইডি কে নির্দেশ প্রদান করেন।

মামলায় আসামিরা হলেন, ১| মহিউদ্দিন আহমেদ (৪৫), পিতা মৃত মোয়াজ্জেম হোসেন। ২| এনামুল হক (৩৮), পিতা মৃত খলিলুর রহমান। ৩| এসএম ফারুক মৃধা (৪৮), পিতা মৃত সেকান্দার মৃধা। ৪| মোঃ নিজাম (৩৬), পিতা মৃত মস্তফা খলিফা। ৫| অপু সিকদার (৪৫), পিতা মৃত আব্দুল মন্নান সিকদার। ৬| আমিনুল ইসলাম মামুন (৫২), পিতা মৃত শাহজাহান মিয়া সহ আরও অজ্ঞাত ১০/১২ জন আসামি। সিআর মামলা নং ১২৩/২২ যাহা বিজ্ঞ আইনজীবী প্রতিবেদক কে নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (৬ই সেপ্টেম্বর ) দুপুরে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মনজুর আহমেদ চৌধুরী পটুয়াখালীতে নদী ও খাল দখল মুক্ত করার লক্ষ্যে শ্মশান ঘাট এলাকা পরিদর্শন করতে গেলে সাথে পৌর মেয়র মহিউদ্দিন সহ কাউন্সিলর এবং মেয়রের অন্যান্য লোক উপস্থিত ছিলেন।

ওই সময় জমির মালিক মাকসুদুর রহমান তালুকদারও উপস্থিত হয়ে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মনজুর আহমেদ চৌধুরীর কাছে মেয়রের বিভিন্ন অপকর্মের কথা তুলে ধরলে মেয়র মহিউদ্দিন তাকে ধাক্কা দেয় এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

পরে তাকে পুলিশ দ্বারা হাতকড়া দিয়ে আটকে রেখে মেয়রের নির্দেশে কাউন্সিলর ফারুক হোসেন, মেয়রের পিএস এনামুল সহ অন্যারা সুযোগ বুঝে মাকসুদুর রহমান তালুকদারকে ফাকে নিয়ে হত্যা করে বলে অভিযোগ করেন পরিবারের লোকজন সহ ভাতিজা নাসির উদ্দিন নামে একজন।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..