সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০১:০১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
রাঙ্গাবালী উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন সভাপতি আরিফ, সম্পাদক জামিল পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি প্রধান আসামি গ্রেফতার মুরাদনগরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্লাস্টিকের বেঞ্চ সরবরাহ দা-বঁটি-ছুরি-চাপাতি বানাতে ব্যস্ত কামার শিল্পী, টুংটাং শব্দে মুখরিত তাড়াইল মির্জাগঞ্জে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ মিরপুর সাইন্স কলেজের ৩য় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে সকল রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে : ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় করার ব্যাপারে আশাবাদী মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মির্জাগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যান আবু বকর, ভা: চেয়ারম্যান শাওন মহিলা ভা: চেয়ারম্যান হাসিনা নির্বাচিত

পিরোজপুর এহসান গ্রুপের প্রতারণা: মামলা আতঙ্কে ভুক্তভোগীরা

পিরোজপুর প্রতিনিধি:
  • আপলোডের সময় : সোমবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৫৮৩৪ বার পঠিত

পিরোজপুরের এহসান গ্রুপের প্রতারণার শিকার ভুক্তভোগীরা মামলা আতঙ্কে ভুগছেন। বেশি বাড়াবাড়ি করলে ক্ষতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীদের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে এই অভিযোগ করেন মো. হারুন অর রশিদ, যিনি এক সময় এই প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মরত ছিলেন।

হারুন অর রশিদ বলেন- এহসান রিয়েল এস্টেট এন্ড বিল্ডার্স লিমিটেডের প্রতারণার শিকার হয়ে ক্ষতিগ্রস্তরা আইনি সহায়তা পাওয়ার জন্য প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় একাধিক মামলা করি। এর প্রেক্ষিতে আদালত তদন্ত সাপেক্ষে আসামিদের নামে একাধিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। কিন্তু আসামিদের বিরুদ্ধে একাধিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকা সত্বেও তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না। আসামিরা উল্টো ক্ষতিগ্রস্থ সদস্যদের জীবন নাশের হুমকি ধামকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন হারুন।

ভূক্তভুগীরা আশঙ্কা করছেন-আসামিদের কাছে থাকা ক্ষতিগ্রস্থ সদস্যদের সকল গুরত্বপূর্ণতথ্য কাগজপত্র গুম করার পাশাপাশি জমি বিক্রি করে ও সদস্যদের টাকা পাচার করে আসামিরা যে কোন সময় দেশ ত্যাগ করতে পারে।

হারুন অর রশিদ আরও জানান- বর্তমানে এহসান গ্রুপের উপদেষ্টা, আঃ রব খানের বিরুদ্ধে ২৭ টি গ্রেপ্তারি পারোয়ানা আছে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান সালমা আহসান, ক্যাশিয়ার শামীম আহসান, সভাপতি শাহ আলম ও ম্যানেজার নাজমুল ইসলামের বিরুদ্ধে একাধিক গ্রেপ্তারি পারোয়ানা রয়েছে।

তিনি জানান, আসামিরা বর্তমানে নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন। এ অবস্থায় ভূক্তভূগীরা পিরোজপুর সদর থানার ওসিকে আসামীদের গ্রেপ্তারে তাগাদা দিলে, বেশি বারাবারি করিলে ভূক্তভূগীদের বিরুদ্ধে মামলা দেবেন বলে হুমকি দেন ওসি। যোগ করেন মো. হারুন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পিরোজপুর সদর থানার ওসি বলেন-এসব কথা বলার প্রশ্নই ওঠে না। আমরা আসামীদের গ্রেপ্তারে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছি। এহসান গ্রুপের বিরুদ্ধে হওয়া মামলাগুলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন সংস্থা তদন্ত করছে। এই মামলার বেশ কয়েকজন আসামী বর্তমানে কারাগারে আছে। বাকিদের গ্রেপ্তারেও আমরা তৎপর রয়েছি।

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, এহসান গ্রুপের উপদেষ্টা আঃ রব খান ভূক্তভূগিদের হুমকি দিচ্ছেন যে, পুলিশের এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তার সাথে আমাদের ভালো সম্পর্ক আছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আমাদের গ্রেপ্তার করবে না।

ক্ষতিগ্রস্থ সদস্যদের দাবি,- উপদেষ্টা আঃ রব খান, চেয়ারম্যান, সালমা আহসান, সভাপতি, শাহ আলম, ক্যাশিয়ার, শামীম আহসান সহ সকলকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হোক। আসামীদের কাছে থাকা সতের হাজার কোটি টাকা সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে ফেরৎ দেওয়া হোক।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- আব্দুর রশিদ শেখ, মাওলানা রফিকুল ইসলাম, মো, এখলাছুর রহমান, আক্তারুজ্জামান, মো. আমিনুল ইসলাম, মো. মারুফ শিকদার ও রিপন শিকদার। তারা সবাই এহসান গ্রুপের প্রতরাণার শিকার।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..