রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি প্রধান আসামি গ্রেফতার মুরাদনগরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্লাস্টিকের বেঞ্চ সরবরাহ দা-বঁটি-ছুরি-চাপাতি বানাতে ব্যস্ত কামার শিল্পী, টুংটাং শব্দে মুখরিত তাড়াইল মির্জাগঞ্জে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ মিরপুর সাইন্স কলেজের ৩য় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে সকল রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে : ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় করার ব্যাপারে আশাবাদী মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মির্জাগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যান আবু বকর, ভা: চেয়ারম্যান শাওন মহিলা ভা: চেয়ারম্যান হাসিনা নির্বাচিত পটুয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদেের সকল বিজয়ীরা নতুন মুখ

ধ্বংসাত্মক বন্যায় লিবিয়ায় প্রাণহানি বেড়ে ৩ হাজার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  • আপলোডের সময় : মঙ্গলবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৫৮১৮ বার পঠিত

ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েল ও তার প্রভাবে প্রবল ঝড়ো হাওয়া-বর্ষণ-বন্যা-জলোচ্ছ্বাসে লিবিয়ার উপকূলীয় শহর দেরনা ও তার আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩ হাজারে পৌঁছেছে। পূর্ব লিবিয়ার স্বঘোষিত সরকারের রাজধানী বেনগাজি থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে এই তথ্য।

ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েল ও তার প্রভাবে প্রবল বর্ষণ ও বন্যায় লিবিয়ার উপকূলীয় শহর দারনাসহ অন্যান্য উপকূলী শহরগুলোতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩ হাজারে পৌঁছেছে। পূর্ব লিবিয়ার স্বঘোষিত সরকারের রাজধানী বেনগাজি থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে এই তথ্য।

এ ছাড়াও এখন পর্যন্ত হাজার হাজার মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন। বৈশ্বিক মানবিক সহায়তা সংস্থা রেডক্রস অ্যান্ড রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির লিবিয়া শাখার প্রধান তামের রমজান জানান, তাদের কাছে থাকা তথ্য অনুযায়ী, ঝড়ের পর থেকে এখনও দেরনা ও তার আশপাশের এলাকায় এখনও নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত ১০ হাজার জন।

সোমবার ভূমধ্যসাগরে উদ্ভূত ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েল লিবিয়ার পূর্ব উপকূলে আছড়ে পড়ে। প্রবল ঝড়ো হাওয়া-বর্ষণ ও জলোচ্ছ্বাসে শত শত বাড়িঘর উড়ে যাওয়ার পাশাপাশি দেরনা শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া নদী ওয়াদি দেরনার দু’টি বাঁধ ভেঙে পানি ঢুকে পড়ায় গোটা শহর প্রায় ভেসে যায়। লিবিয়ার আবহাওয়া দপ্তর ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ঝড়ের সময় সাগর থেকে অন্তত ৮ ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাস আঘাত হেনেছে শহরটিতে।

উপকূলীয় শহর হওয়ায় ঝড়ের আঘাতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেরনা। ঝড়ো হাওয়া-জলোচ্ছ্বাস ও বাঁধভাঙা বন্যায় গোটা শহর কার্যত ধ্বংস হয়ে গেছে।

ঝড়-জলোচ্ছ্বাস-বন্যায় দেরনার প্রায় সব আবাসিক ভবন ধসে গেছে। শহরের ভেতরকার বড় একটি সেতুকে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদক মালিক ত্রাইনা বর্তমানে দেরনায় অবস্থান করছেন। বেনগাজি প্রশাসনের বরাত দিয়ে তিনি জানান, নিহতের সংখ্যা সর্বনিম্ন ৫ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ১০ হাজারে উন্নীত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ত্রাইনা বলেন, ‘বেনগাজি প্রশাসনকে দেরনায় পৌঁছাতে বেশ কষ্ট করতে হচ্ছে। কারণ বন্যা-জলোচ্ছ্বাসে শহরের সব রাস্তা ও সংযোগকারী সড়কগুলো ভেঙে চুরে গেছে। অনেক জায়গায় সড়ক নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্নও হয়ে গেছে।’

সোমবার ঝড়ের পর থেকে লিবিয়ার অন্যান্য অঞ্চলের সঙ্গে দেরনার যাবতীয় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ফলে শহরটির হালনাগাদ তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়েও বেগ পেতে হচ্ছে সাংবাদিকদের।

২০১১ সালে বিদ্রোহী সামরিক গোষ্ঠির হাতে প্রেসিডেন্ট ‍মুয়াম্মার গাদ্দাফি নিহত হওয়ার পর গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়া। বর্তমানে ১৭ লাখ ৫৯ হাজার ৫৪১ বর্গকিলোমিটার আয়তনের এই দেশটি পূর্ব ও পশ্চিম— দুই ভাগে বিভক্ত।

বেনগাজি শহরকে পূর্ব লিবিয়ার রাজধানী ঘোষণা করেছে বিদ্রোহী সরকার। তবে এই সরকার এখন পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ বা বৈশ্বিক কোনো স্বীকৃতি পায়নি। দেশটির মূল রাজধানী ত্রিপোলিতে আসীন সরকারই এখনও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত।

মঙ্গলবার ত্রিপোলির প্রধানমন্ত্রী আবদুল হাবিদ দিবেইবাহ এক ঘোষণায় জানিয়েছেন, একটি সরকারি উড়োজাহাজে দেরনার উপদ্রুত লোকজনের জন্য ১৪ টন খাবার, ওষুধ ও অন্যান্য ত্রাণসামগ্রী এবং চিকিৎসকদের একটি দল আজই পাঠানো হচ্ছে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..