শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৪:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি প্রধান আসামি গ্রেফতার মুরাদনগরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্লাস্টিকের বেঞ্চ সরবরাহ দা-বঁটি-ছুরি-চাপাতি বানাতে ব্যস্ত কামার শিল্পী, টুংটাং শব্দে মুখরিত তাড়াইল মির্জাগঞ্জে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ মিরপুর সাইন্স কলেজের ৩য় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে সকল রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে : ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় করার ব্যাপারে আশাবাদী মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মির্জাগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যান আবু বকর, ভা: চেয়ারম্যান শাওন মহিলা ভা: চেয়ারম্যান হাসিনা নির্বাচিত পটুয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদেের সকল বিজয়ীরা নতুন মুখ

মির্জাগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:
  • আপলোডের সময় : শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৫৭৮৪ বার পঠিত

মির্জাগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তা কর্তৃক মারধরের প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে গত বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫ টায় বরিশাল-বরগুনা মহাসড়কের সুবিদখালী বাজার ব্রিজ সংলগ্ন রাস্তার পাশে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার ও  এলাকাবাসী। মানববন্ধনে সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন ভুক্তভোগী পরিবার ।

ভুক্তভোগী মোসাম্মৎ আখেরুন্নেসা তিনি পূর্ব সুবিদখালীর আনসার মুন্সির স্ত্রী ও তার নাতি বউ, উভয়ের থানা মির্জাগঞ্জ, জেলা: পটুয়াখালী।

অভিযুক্ত মোঃ হারুন শিকদার, পিতা  মৃত: গোলাম রহমান সিকদার , গ্রাম: পূর্ব সুবিদখালী ,থানা মির্জাগঞ্জ জেলা: পটুয়াখালী। তিনি বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

অভিযোগকারী মোঃ রাকিবুল ইসলাম রাকিব বলেন, বিবাদী ১ নং সাক্ষী আমার দাদি মোসাম্মৎ আখেরুন্নেসা এর চাচাতো ভাই হয়। বিবাদী আমার দাদীর পৈত্রিক সম্পত্তি বুঝিয়ে না দিয়ে জোরপূর্বক ভোগ দখল করিতেছে। গত ২৪-০৪-২০২৪ ইং তারিখ সন্ধ্যা আনুমানিক ছয় ঘটিকার সময় বিবাদী ৪ নং সাক্ষীর দোকানের সামনে রাস্তার উপর দেখিয়া ১ নং সাক্ষী আমার দাদি ও আমার স্ত্রী সহ তার কাছে আসিয়া বিবাদীর  নিকট তাহার পৈতৃক সম্পত্তি বুঝিয়া দিতে বলিলে উক্ত বিবাদী উত্তেজিত হইয়া আমার দাদিকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা সহ এলোপাতাড়ি কিল ,ঘুষি ,মারিয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে  জখম করে ও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় ,তখন আমার স্ত্রী আমার দাদিকে রক্ষা করার চেষ্টা করলে উক্ত বিবাদী আমার স্ত্রীকেও এলোপাতাড়ি কিল, ঘুসি মারিয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে মেরে জখম করে, বর্তমানে আমার দাদি মির্জাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আমরা এ ধরনের নেক্কারজনক ঘটনার সুষ্ঠু বিচার এবং সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত পুলিশে কর্মরত মো: হারুন সিকদারের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার বিরুদ্ধে সকল অভিযোগ মিথ্য ও ভিত্তিহীন। তবে শনিবার এ বিষয় নিয়ে কাগজপত্র দেখে শালিসি হবে শালিসিতে যদি আমার কাছে জমি প্রমানিত হয় তাহলে আমি জমি দিয়ে দিব।

মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন তাদের সাথে দীর্ঘদিনের জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধ চলছে, দুই পক্ষই আমার কাছে এসেছে শনিবার সালিশি বৈঠক হবে বলে আমাকে জানিয়েছে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..