বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ইরানি সংস্কৃতিতে আমূল পরিবর্তন প্রয়োজন, বললেন খামেনি রেলপথে ৩৪০ দিনে ১ হাজার ৫৩৫ দুর্ঘটনায় নিহত ২৬১ প্রধানমন্ত্রীর নতুন মুখ্য সচিব তোফাজ্জেল হোসেন মিয়া অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির জন্য সমুদ্র নিরাপদ রাখতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী বিএনপি পল্টনেই কেন সমাবেশ করতে চায়, খতিয়ে দেখা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজারের মানুষ আমার হৃদয়ে আছে : প্রধানমন্ত্রী এলএনজি সরবরাহে আগ্রহী ইতালি বিএনপি অফিসে লাঠি-ককটেলের খবরে অভিযানে যায় পুলিশ: ডিএমপি কমিশনার ২০২৪ সালের প্রথম সপ্তাহে নির্বাচন, নৌকা মার্কায় ভোট চাই : প্রধানমন্ত্রী ভোলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে পাল্টে গেছে ভূমিহীনদের জীবন

ঝালকাঠির লঞ্চে অগ্নিকান্ডে উদ্ধারকৃত মৃতদের গণকবরে দাফন

বরগুনা প্রতিনিধি:
  • আপলোডের সময় : শনিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৫৮ বার পঠিত

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে বরগুনাগামী লঞ্চ এমভি অভিযান-১০-এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্ধার হওয়া ৩৯ জনের মধ্যে ৩৩ জনের মরদেহ গতকাল শুক্রবার রাতে নিয়ে যাওয়া হয় বরগুনায়। সেখানে কেউ কেউ লাশ শনাক্তের পর নিয়ে যান নিজ এলাকায়। বাকিদের লাশ দাফনের উদ্দেশ্যে এরই মধ্যে আজ শনিবার সকালে নিয়ে যাওয়া হয় বরগুনার পোটকাখালী গণকবরে। তাদের জন্য সারিবদ্ধভাবে খোড়া হয় কবর। সেখানে দাফন করা হচ্ছে মরদেহগুলো।

এদিকে, লাশ গণকবরে দাফনের প্রক্রিয়া চলছে। এর মধ্য থেকেই স্বজনেরা লাশ শনাক্তের জন্য উপস্থিত হয়েছেন। কেউ কেউ দাফন প্রক্রিয়া চলাকালেই লাশ শনাক্তের চেষ্টা চালাচ্ছেন। এখন পর্যন্ত ২৬ জনের মরদেহ দাফনের প্রক্রিয়া চলছে। বেশির ভাগের দাফনকাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে। এর আগে আজ শনিবার বেলা ১১টার দিকে হাজারও মানুষের উপস্থিতিতে বরগুনার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে ৩২ জনের মরদেহের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল রাত ১১টার দিকে এসব মরদেহ বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে রাখা হয়।

বেশির ভাগ মরদেহ বিকৃত হয়ে যাওয়ায় শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এসব মরদেহ শনাক্তের জন্য ডিএনএ টেস্টের নমুনা সংগ্রহ করে রাখা হয়েছে। ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে বরগুনাগামী লঞ্চ এমভি অভিযান-১০-এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৩৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। দগ্ধ হয়েছে শতাধিক মানুষ। নদীতে লাফিয়ে পড়ে এখনও নিখোঁজ রয়েছে অনেকেই। তাদের সন্ধানে সুগন্ধার তীরে অপেক্ষায় আছে স্বজনেরা।

কেউ আবার ট্রলার নিয়ে নদীর বিভিন্ন প্রান্তে খুঁজে বেড়াচ্ছেন প্রিয়জনকে। কারও হাতে নিখোঁজদের ছবি, তা নিয়ে নদী তীরের বাসিন্দাদের দেখাচ্ছেন, আর বিলাপ করছেন। কেউ আবার নদী তীরের মিনিপার্ক, ডিসিপার্ক, লঞ্চঘাট এবং ঘটনাস্থল দিয়াকুল এলাকায় ঘুরছেন। অন্তত নিখোঁজ স্বজনদের মৃতদেহ যেন বাড়ি নিয়ে যেতে পারেন, সে অপেক্ষায় আছেন স্বজনেরা।

এদিকে, আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে ঝালকাঠি ও বরিশালের ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল লঞ্চঘাট এলাকা থেকে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে। নদীতে নিখোঁজদের উদ্ধারে ডুবুরিদল সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করবে বলে জানিয়েছেন ঝালকাঠি ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক মো. কামাল উদ্দিন ভুঁইয়া।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..