মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০২:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
রাঙ্গাবালী উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন সভাপতি আরিফ, সম্পাদক জামিল পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি প্রধান আসামি গ্রেফতার মুরাদনগরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্লাস্টিকের বেঞ্চ সরবরাহ দা-বঁটি-ছুরি-চাপাতি বানাতে ব্যস্ত কামার শিল্পী, টুংটাং শব্দে মুখরিত তাড়াইল মির্জাগঞ্জে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ মিরপুর সাইন্স কলেজের ৩য় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে সকল রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে : ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় করার ব্যাপারে আশাবাদী মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মির্জাগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যান আবু বকর, ভা: চেয়ারম্যান শাওন মহিলা ভা: চেয়ারম্যান হাসিনা নির্বাচিত

বরগুনা-২ আসনে সামাজিক কর্মকান্ডে এগিয়ে সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপলোডের সময় : সোমবার, ২২ মে, ২০২৩
  • ৫৯৫৫ বার পঠিত
বিডি পিপলস নিউজে’র সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক অর্থ বিষয়ক সম্পাদক সুভাস চন্দ্র হাওলাদার।

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বরগুনা – ২ আসনে ( বেতাগী -বামনা-পাথরঘাটা) আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন কে কেন্দ্র করে সামাজিক ও দলীয় কর্মকান্ড দ্বারা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের প্রভাবশালী প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক অর্থ বিষয়ক সম্পাদক সুভাস চন্দ্র হাওলাদার।

কেন্দ্রীয় যুবলীগের এই নেতার জন্ম বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার বড়ই তলা গ্রামে ১৯৬৭ সালের ১৮ ই মার্চ। তার পিতা মৃত সখানাথ হাং এবং মাতা শুশিলা রানী হাওলাদার। তিনি ১৯৯০ সালে প্রচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তৎকালীন বিএ স্মাতক সম্পন্ন করেন। ছাত্র জীবনে অতন্ত্য মেধাবী ছাত্র ছিলেন যুবলীগের এই নেতা। ১৯৮২ – ১৯৮৪ সালে মঠবাড়িয়া কলেজ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে হাতেখরি তার। পেশা হিসাবে তিনি ব্যবসাকে বেছে নেন পাশাপাশি মানুষের কল্যানে বিশেষ করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আর্দশে অনুপ্রানীত হয়ে আওমীলীগের রাজনীতিতে জরিয়ে পরেন।

এরই ধারাবাহিকতায় জনাব সুভাষ চন্দ্র হালদার ১০১২ – ২০১৯ সাল পর্যন্ত তিনি কেন্দ্রীয় যুবলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগ ও বামনা উপজেলা আওয়ামী লীগের একজন সক্রিয় সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। ব্যক্তি জীবনে অত্যন্ত সৎ থাকায় এই মানুষটি খুব দ্রুত আওমীলীগের রাজনীতিতে সফলতার মুখ দেখেন খুব তারাতারি। তার সততা ও দলের প্রতি দায়িত্ববান হওয়ার ফলে সহজেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের আস্থাভাজন হয়ে ওঠেন। সর্বশেষ তাকে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সর্বময় ক্ষমতার অধিকারি ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির একজন প্রভাবশালী এবং কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের আস্থা ভাজন সদস্য হিসাবে যুবলীগকে শক্তিশালী করতে কাজ করে যাচ্ছেন।

কেন্দ্রীয় রাজনীতির পাশাপাশি স্থানীয় বরগুনা – ২ আসন ( বেতাগী -বামনা -পাথরঘাটা) সাধারণ মানুষের জন্য বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক ও জনকল্যান মূলক কাজে মনোনিবেশ করেন।

এলাকার গনমানুষের ভালোবাসায় সিক্ত সুভাস চন্দ্র হাওলাদার।

২০২২ সালে করোনাকালীন সময়ে তিনি বেতাগী -বামনা -পাথরঘাটা বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষের মাঝে প্রায় ২ (দুই) লাখ মাস্ক, সাড়ে ৫ হাজার হ্যান্ড স্যনিটাইজার ও প্রায় ৬ ( ছয়) হাজার পরিবারের মাঝে নগর অর্থ প্রদান করেন এবং ৫ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন।

এ ছারাও তিনি তিন উপজেলার প্রায় ৪০ টি মসজিদ ও ৩০ মন্দির নির্মানে নগদ অর্থ দিয়ে সহায়তা করার পাশাপাশি ২০২২ সালে পাথরঘাটা উপজেলার ৮,০০০ গরীব শ্রমিকদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করার ও তিন উপজেলায় অসহায় চা দোকানদারদের মাঝে প্রায় ৭০,০০০ হাজার চায়ের কাপ প্রদান কারি। পাশাপাশি প্রতি ঈদে, কুরবানী তে অসহায় মানুষের মাঝে শাড়ি, কাপড় প্রদান করে আসছেন।

সবার সাথে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে এলাকার সাধারন মানুষদের ঈদ উপহার প্রদান করছেন সুভাস চন্দ্র হাওলাদার।

বরগুনা ২ আসনের তিন উপজেলার আওয়ামী লীগ, যুবলীগ এবং ছাত্রলীগের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এবং জাতীয় অনুষ্ঠানগুলোতে স্বাধীনতা দিবসে, বিজয় দিবস, মহান একুশে ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠানে গুলোতে অংশ গ্রহন ও নগদ অর্থএবং প্রয়োজনীয় সরজ্ঙামদি প্রদান করার পাশাপাশি তিন উপজেলার বিভিন্ন শেন্রীপেশার মানুষের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করে দলকে ঐক্যবন্ধ রাখতে ভুমিকা রাখছেন।

সুভাষ চন্দ্র বর্তমানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মন্দির ও মাদরাসা এবং সামাজিক সাংস্কৃতিক, সংগঠন গুলোর পৃষ্ঠাপোষক হিসাবে ও আজীবন দাতা সদস্য হিসাবেও উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন।

নববর্ষের শুভেচ্ছার উপহার।

সাবেক সভাপতি বামনা সারওয়াজ স্কুল ও কলেজ, বামনার খোলপটুয়া মাদ্রাসার পৃষ্ঠো পোষক সদস্য, রাইফেলস ক্লাব, বরগুনা এবং আজীবন সদস্য গুলশান হর্কাস সোসাইটি, গুলশান বনানীর এলিট ক্লাবের আজীবন সদস্য হিসাবে এগুলোর সামগ্রিক উন্নয়ন করে যাচ্ছেন।

এ বিষয় যুবলীগের কেন্দ্রীয় এই নেতা BD Peoples News কে বলেন ” আমি ২০০১,২০০৮ এবং ২০১৪ সাল থেকে মনোনয়ন চেয়ে আসছি এবং বরগুনা – ২ আসনে ( বেতাগী – বামনা -পাথারঘাটা) মানুষের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছি এবং ভবিষ্যতে ও করবো। আগামী ২০২৪ সালের সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন পেলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও এই আসনের মানুষের ও সার্বিক উন্নয়নের জন্য আপ্রান চেষ্টা করবো। “

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..