শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ০৬:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
সড়ক ও জনপথ কর্মকর্তার ব্যাংকে শত কোটি টাকার লেনদেন হরিরামপুরে ৪ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা অর্জনের অভিযোগ ডিপিএইচই’র প্রাক্কলনিক আনোয়ারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের উন্নয়নে চীনের সমর্থন অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিলেন শি জিনপিং বেনজীর-মতিউর-এর কুশপুতুল দাহ করায় হুমকি : উদ্বেগ প্রকাশ কোটা সমস্যার সমাধান করার দাবি জাতীয় শিক্ষাধারার হরিরামপুরে পদ্মা তীর রক্ষা বাঁধে ধস, জনমনে আতংক মুরাদনগর শ্রীকাইলে ক্যাপ্টেন নরেন্দ্রনাথ দত্ত স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে হুরোয়া চ্যাম্পিয়ন তাড়াইলের কথিত পীর লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ বর্ষার পানি বৃদ্ধির সঙ্গে বাড়ছে নৌকার চাহিদা

হরিরামপুরে বিএনপির ৫ নেতাকর্মীকে কোপাল দুর্বৃত্তরা

দিপংকর মন্ডল, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি:
  • আপলোডের সময় : বৃহস্পতিবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৫৮২৮ বার পঠিত

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে বয়ড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক জাহিদুর রহমান তুষারসহ যুবদলের পাঁচ নেতাকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নের নবগ্রাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ও বয়ড়া ইউনিয়নের তিনবারের সাবেক চেয়ারম্যান জাহিদুর রহমান তুষার, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুবদলকর্মী শাকিল মোল্লা, যুবদল নেতা মাছুম শিকদার, যুবদল নেতা বাদল মন্ডল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলমাছ মিয়া। আহতদের মধ্যে জাহিদুর রহমান তুষারের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। জাহিদুর রহমান তুষারের অবস্থা বেশি খারাপ হওয়াই তাকে ঢাকা নেওয়া হয়েছে এবং অন্যরা বর্তমানে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বয়ড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জাহিদুর রহমান তুষারের ভাই ও জেলা পরিষদের সদস্য হায়দার আলী তারেক বলেন, আমার ভাই গ্রুপিং পলেটিক্সের শিকার। আমার ভাইকে ওরা হত্যার উদ্দেশ্য নিয়ে এরকম হামলা চালায়। আমার ভাইয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

তিনি আরও বলেন, আপনারা জানেন আমার ভাই বিএনপি করে। সে জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতার বাসা থেকে হরিরামপুর ফিরছিলো। ফেরার পথে আমার ভাইয়ে ওপর অতর্কিত হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা । আমার ভাইকে দুর্বৃত্তরা চাপাতি দিয়ে কোপায়। তাঁর কান কেটে গেছে। পা ভেঙে গেছে। গুরুতর জখম হয়েছে। শাকিল মোল্লাকে গুলি করা হলেও গুলি লাগেনি। শাকিল মোল্লাসহ, মাছুম শিকদার, বাদল মন্ডলকে হাতুরিপেটা করা হয়েছে। আমার ভাইয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে ঢাকা শ্যামলী ট্রমা সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

যুবদল নেতা মাছুম শিকদার বলেন, আমরা জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতা আপার বাসা থেকে হরিরামপুর যাচ্ছিলাম। নবগ্রাম ইউনিয়নের নবগ্রাম ব্রিজের আগে ফাঁকা জায়গা থেকে ৮ থেকে ৯ জন আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা করে। আমরা চারজন বর্তমানে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছি। তুষাড় ভাইয়ের অবস্থা বেশি খারাপ হওয়াই তাকে ঢাকা নেওয়া হয়েছে।

মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রউফ সরকার বলেন, ঘটনা জানতে পেরেছি। এখনো কোন অভিযোগ হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..