শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৮:১২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
দৈনিক জনকন্ঠে ভূল সংবাদ পরিবেশন করায় ব্যবসায়ীর সংবাদ সম্মেলন সরকারের সময়োচিত উদ্যোগ বাস্তবায়নে পুলিশ জনবান্ধব বাহিনীতে পরিণত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ ও নিরাপদে রাখতে পুলিশ সচেষ্ট থাকবে: রাষ্ট্রপতি রাফাহতে ইসরায়েলের হামলা হবে গাজার সাহায্যেও ‘কফিনে চূড়ান্ত পেরেক’ : জাতিসংঘ প্রধান অমর একুশে বইমেলার ২৬তম দিনে নতুন বই এসেছে ২৪৬টি বাংলাদেশ ফিলিস্তিনের নিপীড়িত জনগণের পাশে আছে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী বিএনপিকে ভুলের খেসারত দিতে হবে : ওবায়দুল কাদের দৃষ্টিনন্দন নগরী পটুয়াখালী এখন দর্শনার্থীদের আকর্ষণ লিবিয়া থেকে আরো ১৪৪ জন অনিয়মিত বাংলাদেশী দেশে ফিরেছেন স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ শুরু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মোদিকে এক হাত নিলেন রাহুল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  • আপলোডের সময় : বুধবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২২
  • ৫৯৯৩ বার পঠিত

ভারতের নারীদের সঙ্গে ছলনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি— এমনই অভিযোগ আনলেন দেশটির শীর্ষ কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

কীসের ছলনা, তার ব্যাখ্যা দিয়ে রাহুল বলেন, উনার কথার সঙ্গে কাজের মিল নেই। স্বাধীনতা দিবসের দিন লালকেল্লায় দাঁড়িয়ে উনি নারীদের নিরাপত্তা ও তাদের সম্মানের কথা বলেন। অথচ প্রধানমন্ত্রী কার্যক্ষেত্রে ধর্ষণকারীদের পক্ষ নেন, তাদের সমর্থন করেন।

বিলকিস বানোর ধর্ষণকারীদের যে মোদীর সরকারই আগাম মুক্তির অনুমতি দিয়েছিল, প্রকাশ্যে এসেছে সম্প্রতিই। সেই প্রসঙ্গ টেনে মোদির সমালোচনা করেছেন কংগ্রেসের এই শীর্ষ নেতা।

২০০২ সালে গুজরাটে দাঙ্গা চলাকালীন মুসলিম তরুণী বিলকিসকে ধর্ষণ ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার অভিযোগ উঠেছিল ১১ জনের বিরুদ্ধে। এ বছর স্বাধীনতা দিবসের দিন তাদের সাজার মেয়াদ ফুরনোর আগেই মুক্তি দেয় গুজরাট সরকার।

বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হওয়ায় সোমবার সুপ্রিম কোর্টে একটি হলফনামা দিয়ে গুজরাট সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ধর্ষকদের সাজা কমানোর অনুমোদন গুজরাট সরকার পেয়েছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকেই। অর্থাৎ মোদির নেতৃত্বাধীন সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অমিত শাহের দপ্তরই ধর্ষকদের মুক্তি দেওয়ার অনুমতি দিয়েছিল।

ঘটনাচক্রে, ১৫ অগস্ট স্বাধীনতা দিবসের দিনই মুক্তি পান বিলকিসকাণ্ডের ১১ জন। লালকেল্লায় দাঁড়িয়ে মোদি ওই দিন বলেছিলেন, আমাদের এমন কিছু করা উচিত নয় যা নারীর মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করে। আজ ভারতবাসীদের আমি একটি অনুরোধ করতে চাই, আমরা কি আমাদের প্রতিদিনের জীবনের সঙ্গে জড়িত নারীদের একটু সম্মান করতে পারি না? তাদের প্রতি আমাদের মানসিকতা বদলাতে পারি না?

রাহুল এই মন্তব্যেরই জের টেনে আক্রমণ করেছেন প্রধানমন্ত্রীকে। টুইটারে হিন্দিতে তিনি লিখেছেন, ‘লালকেল্লায় নারীদের সম্মানের কথন, অথচ বাস্তবে ধর্ষণকারীদের সমর্থন— প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি ও কাজের মধ্যেই বিস্তর ফারাক রয়েছে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..