বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ওরা বলে সংবিধান ছুড়ে ফেলে দিবে!: এ্যাড. আফজাল মির্জাগঞ্জের রোজ গার্ডেন সঞ্চয় ও ঋণদান সম: সমিতির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত অল্প ভোটে হেরে গেলেন হিরো আলম আইএমএফের ঋণ অনুমোদন অর্থনীতির জন্য স্বস্তি : ডিসিসিআই বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী প্যালেষ্টাইন টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজে নবীন বরণ অনুষ্ঠিত মুরাদনগরে অধ্যাপক আবদুল মজিদ কলেজ’র নবীন বরণ অনুষ্ঠিত কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ক্লু-লেস অটোচালক রাসেদ হত্যার রহস্য উদঘাটন: খুনি গ্রেফতার যে নেতা আন্দোলনে রাজপথে থাকবে না তাকে অব্যাহতি দেয়া হবে: পটুয়াখালী জেলা বিএনপি মির্জাগঞ্জে বিয়ের দাবিতে অনশণ করা সেই মারিয়া পুলিশ হেফাজতে

মাধ্যমিকের ১২ লাখ বই এখনো পৌঁছায়নি ভোলায়

সাব্বির আলম বাবু (ভোলা ব্যুরো চিফ):
  • আপলোডের সময় : রবিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৫৮৭৮ বার পঠিত

আনুষ্ঠানিকভাবে এবার বই উৎসব না হলেও নতুন বইয়ের পরশ থেকে বঞ্চিত হয়নি ভোলার শিক্ষার্থীরা। জেলার ১ হাজার ৪৭ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২ লাখ ৬৪ হাজার ৬ শত ৪৬ শিক্ষার্থীর মাঝে ১২ লাখ ৫৭ হাজার ৫২৯ টি বই বিতরণের শুরু হয়েছে। বছরের প্রথম দিনে বই পেয়ে দারুণ খুশি শিক্ষার্থীরা।প্রাথমিকের সব বই এসে পৌঁছালেরও জেলার ৫১২ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদরাসার ৩ লাখ ৭২ হাজার ২২৮ জন শিক্ষার্থীর জন্য বরাদ্দ চাওয়া সব বই এখনো জেলায় এসে পৌঁছায়নি বলে জানিয়েছেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। এখনো মাধ্যমিকের ১২ লাখ ২৬ হাজার বই জেলায় এসে পৌছায়নি। আজ শনিবার অনানুষ্ঠানিক ভাবে প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে বই বিতরণ করা হয়। আগামী সপ্তাহের মধ্যে এ বই বিতরণ শেষ হবে বলে জানা গেছে।
নজরুল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাহিদা আক্তার সুমনা জানান, করোনার কারণে বই উৎসব না হওয়ায় আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ শুরু করেছি শ্রেণিভেদে পর্যায়ক্রমে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সব শিক্ষার্থীদের হাতে বই পৌঁছে দেওয়া হবে। নজরুল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সালমা সারমিন জানান, বই উৎসব না থাকলেও নতুন বই পেয়ে ছাত্রছাত্রীরা অনেক খুশি আনন্দিত। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নিখিল চন্দ্র দাস জানান, বই বিতরণে কোন সমস্যা হচ্ছে না। সবকিছু স্বাভাবিকভাবে চলছে। করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বই বিতরণের জন্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, তারা সে অনুযায়ী কাজ করছেন।
জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাধব চন্দ্র দাস জানিয়েছেন, জেলার ৭ উপজেলার ৫১২ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদরাসার ৩ লাখ ৭২ হাজার ২২৮ জন শিক্ষার্থীর মাঝে বই বিতরণ শুরু হয়েছে। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য জেলা শিক্ষা বিভাগ থেকে ৪২ লাখ ৪৯ হাজার ৮৩ টি বইয়ের চাহিদা দেওয়া হলেও এ পর্যন্ত পাওয়া গেছে ৩০ লাখ ২২ হাজার ১৫৭ টি বই। এখনো ১২ লাখ ২৬ হাজার ৯ শত ২৬ টি বই ঘাটতি রয়েছে। তিনি আরও জানান, শনিবার ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ শুরু হয়েছে। আগামীতে সব শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ করা হবে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..