শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
বেতাগীতে উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে ইউপি চেয়ারম্যানের পদত্যাগ মুরাদনগরে প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন প্রধানমন্ত্রীর তৃতীয় ধাপে ১১২টি উপজেলার ভোটগ্রহণ ২৯ মে ঝালকাঠিতে ট্রাক, অটোরিকশা ও প্রাইভেট কারের ত্রিমুখী সংঘর্ষে ১৪ জন নিহত মধ্যপ্রাচ্যের অস্থিরতার প্রতি নজর রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর মির্জাগঞ্জে কৃষি জমিতে সেচ দিতে গিয়ে যুবক ফিরলো লাশ হয়ে মির্জাগঞ্জে ইসি সচিব’র সাথে মতবিনিময় সভা পটুয়াখালীতে সাবেক ইউপি সদস্যের স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু তাড়াইলে জাতীয় উলামা মশায়েখ আইম্মা পরিষদের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

চলাফেরায় কঠোর বিধিনিষেধ শুরু পশ্চিমবঙ্গে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপলোডের সময় : সোমবার, ৩ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৬০৪০ বার পঠিত

আজ সোমবার থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সব স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হচ্ছে। এ ছাড়া আগামী ১৩ দিন জিম, সুইমিং পুল, বিউটি সেলুন, স্পা-ও বন্ধ থাকছে। সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে।

কোভিড মোকাবিলায় গতকাল রোববারই কড়া বিধিনিষেধ জারির ঘোষণা করে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যসরকার। সে বিধিনিষেধ কার্যকর হচ্ছে আজ থেকে। এ বিধিনিষেধ জারি থাকবে আগামী ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। আর, এ সময়কালে রাজ্যে ফের বন্ধ থাকবে সেলুন, স্পা, বিউটি পার্লার ইত্যাদি।

এর আগে করোনার সংক্রমণে যখন প্রথম বার পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন জারি করা হয়েছিল, সে সময়ও দীর্ঘদিন বন্ধ থেকেছিল স্পা, বিউটি পার্লার ও সেলুন। এরপর করোনার সংক্রমণ কিছুটা কমলে ধাপে ধাপে খুলেছিল সেগুলো। কোভিডবিধি মেনে গ্রাহকেরা সেলুন বা স্পা-তে যেতে পেরেছিলেন। কিন্তু, পুনরায় রাজ্যে করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হতেই বন্ধ হচ্ছে স্পা, বিউটি পার্লার, সেলুনের দরজা।

তা ছাড়া আজ থেকে পশ্চিমবঙ্গের সব স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হচ্ছে। শিক্ষা কার্যক্রম আবারও অনলাইনে ফিরছে। তবে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কর্মক্ষেত্রে যেতে পারবেন। যদিও এ উপস্থিতির হার ৫০ শতাংশের বেশি হতে পারবে না।

একইভাবে সরকারি ও বেসরকারি অফিসের ক্ষেত্রেও দিনে সর্বাধিক ৫০ শতাংশ কর্মীকে অফিসে ডাকা যাবে। বাকি ৫০ শতাংশ কর্মচারীকে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ করতে হবে।

এদিকে, আগামী ১৩ দিন জিম ও সুইমিং পুলও বন্ধ থাকছে। তা ছাড়া বন্ধ থাকছে বিনোদন পার্ক, চিড়িয়াখানাসহ বিভিন্ন পর্যটনস্থল।

আর, শপিংমল ও মার্কেট কমপ্লেক্সে ধারণক্ষমতার সর্বাধিক ৫০ শতাংশ লোক ঢুকতে পারবেন। শপিংমলগুলো রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

তা ছাড়া সিনেমা হল, রেস্তোরাঁ ও পানশালাতেও ধারণক্ষমতার সর্বাধিক ৫০ শতাংশ লোক ঢুকতে পারবেন। একইভাবে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে চলবে লোকাল ট্রেন ও মেট্রো। লোকাল ট্রেন চলবে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। তবে, দূরপাল্লার ট্রেনে কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়নি।

এদিকে, রাত্রিকালীন বিধিনিষেধের সময়সীমা বাড়িয়ে রাত ১০টা থেকে ভোর ৫টা করা হয়েছে।

দয়া করে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..